গেজেট রিভিউটেক রিভিউতথ্যপ্রযুক্তি

মেমরি কার্ড কেনার আগে যেগুলো জেনে নেওয়া উচিৎ

মেমরি কার্ড ব্যবহার করেন না মোবাইলে এই রকম লোকের সংখ্যা খুবই কম। বলতে গেলে প্রায় সবাই মেমরি কার্ড ব্যবহার করি। আমরা অনেক সময় নতুন মোবাইল কিনার পরও কিছুদিন পর দেথা যায় মোবাইলটি ল্যাক করছে, এর কারন কি? তবে কি মোবাইলে কোন সমস্যা। না এই সমস্যা হয়ে থাকে আপনার মোবাইলে থাকা বাজে কোয়ালিটির মেমরি কার্ড। তাই আপনাকে অবশ্যই মেমরি কার্ড কি এবং কিভাবে কাজ করে বা এর বিস্তারিত জেনে নেওয়া উচিৎ। 

মেমোরি টাইপ

মেমরি ককর্ড বর্তমানে ৫ প্রকারের হয়ে থাকে –

১। SDsc (Secure Digital Standard Capacity) Capacity : 0 to 2 GB 

২। SDhc (Secure Digital High Capacity) 

Capacity : 2 to 32 GB

৩। SDxc (Secure Digital Extended Capacity) 

Capacity : 32 GB to 2 TB

৪। SDuc (Secure Digital Ultra Capacity)

Capacity : 2 to 128 TB

৫। SDio (Secure Digital Input Output) [এটি সকলের জন্য উন্মুক্ত না ]

স্পীড

স্পীড হলো মেমরির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জিনিস সেটা যত বরশি জিবি হউক না কেন, তাই অবশ্যই স্পীড বেশি যুক্ত মেমরি কার্ড কেনা উচিৎ। মেমরিতে C, U, V এই ধরনের কিছু জিনিস দেখা যায়। আবার এগুলোর মধ্যেও রয়েছে প্রকারভেদ। যেমন C2, C4, C6, C8, C10 আবার U1, U2, U3 এবং V10, V30, V60, V90। এগুলো দ্বারা মেমরির স্পীড প্রকাশ করা হয়। 

C2 = 2 MBPS

C4 = 4 MBPS

C6 = 6 MBPS

C8 = 8 MBPS

C10 = 10 MBPS

এই ধরনের মেমরিগুলো আরো চার বা পাঁচ বছর আগে অনেক জনপ্রিয় ছিল। কিন্তু বর্তমানে এই ধরনের মেমরি দেখাই যায় না।

U1 = 10 MBPS

U2 = 20 MBPS

U3 = 30 MBPS

আল্ট্রা হাই স্পীডের এই মেমরি কার্ডগুলোও অনেক জনপ্রিয়, বর্তমানে অনেকে এই ধরনের মেমরি কার্ড ব্যবহার করে। এগুলো কিন্তু সবচেয়ে বেশি বিক্রিত মেমরি কার্ড। 

V10 = 10 MBPS

V30 = 20 MBPS

V60 = 60 MBPS

V90 = 90 MBPS

ভিডিও স্পীড ক্লাসের V90 এটিই হল সবচেয়ে দ্রুত গতির মেমরি কার্ড। এর মানে মেমরির ডাটা ব্যবহারের স্পীড প্রায় ৯০ এমবিপিএস। 

এছাড়াও আপনার ফোনের থাকা মেমরি কার্ডপির স্পীড যদি না জেনে থাকেন তাহলে গুগল প্লে স্টোর থেকে SD CARD TEST নামক অ্যাপটি দিয়ে জেনে নিতে পারেন খুব সহজে।

কোন ডিভাইসে কোন মেমরি সাপোর্ট করে? 

যদি মেমরিতে শুধু C লেখা থাকে তাহলে সেটি শুধু নরমাল মোবাইলে সাফোর্ট করবে। এছাড়া অন্য কোথাও চলবে না।

আবার যদি C এর সাথে U থাকে সেটি আল্ট্রা হাই স্পীডের প্রয়োজনীয় ডিভাইসের প্রয়োজন যেগুলো সেগুলোতে সাফোর্ট করবে।

  1. মোবাইল 
  2. ডিএসএলআর ক্যামেরা
  3. ক্যামকর্ডার

আপনার জন্য কোন মেমরি কার্ড দরকার?

আপনি যদি C4 বা C6 এর ৬৪ জিবি মেমরি কার্ড কিনেন সেটির দাম হতে পারে ৪০০ – ৫০০ টাকা। 

আবার যদি U1 বা U3 এর ৬৪ জিবি মেমরি কার্ড কিনেন সেটির দাম হতে পারে ১৮০০-২০০০ টাকা।

আপনি কিভাবে বুঝতে পারবেন আপনি কোনটা প্রয়োজন। আপনি যদি শুধু ছবি তুলেন তাহলে আপনার C6 হয়ে যাবে আবার যদি হাই মেগাপিক্সেল এর ছবি তুরেন তাহলে ছবি ভালো আসবে না। কারন ছবি প্রসেস করার জন্য পর্যাপ্ত স্পীড থাকে না। এছাড়াও হাই কোয়ালিটি ভিডিও ওপেন হতেও সময় লাগতে পারে।

আপনি যদি ভালো ছবি তুলতে চান তাহলে আপনার C10 দরকার। আবার আপনার যদি সিনেমাটিক ভিডিও শুট করতে হয় তাহলে V1 এর মেমরি কার্ড প্রয়োজন। 

একটি মেমরি কার্ড আপনার নতুন মোবাইলের অনেক ক্ষতি করে দিতে পারে। চেষ্টা করবেন মোবাইল ফোনে মেমরি কার্ড না ব্যবহার করতে কিন্তু যদি ব্যবহার করতে হয় ভারো কোয়ালিটির মেমরি কার্ড কিনা উচিৎ ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button